আধুনিক ঔষধ কীভাবে আমাদের দেহের ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে?

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া।
মানবদেহ প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরী হয়েছে। শরীরবৃত্তিয় কার্য সম্পূর্ণ মস্তিষ্ক দ্বারা পরিচালিত হয়।

আমরা প্রাকৃতিক জীবনধারাকে এমন ভাবে পরিবর্তন করে নিয়েছি যা আমাদের শরীরে অনেক ভারসাম্যহীনতার সৃষ্টি করে ফলে অসুস্থতা দেখা দেয় ও তা নিরাময়ের জন্য ঔষধের প্রয়োজন হয়।

মানুষের সৃষ্টি হয়েছিল সহজ সরল জীবন ধারনের জন্য। কিন্তু জীবনযাত্রার বিবর্তন ও পরিবর্তনের ফলে মানুষের জীবনশৈলী খাদ্যাভাসে পরিবর্তন এসেছে এবং ধীরে ধীরে ঔষধের ব্যবহার ও বেড়েছে।

বাজারে প্রাপ্ত প্রাকৃতিক খাবারের চেয়ে এখন মানুষ মেডিসিনের উপর বেশি নির্ভরশীল। বাজারে টিকে থাকার জন্য অনেক ঔষধ প্রস্তুতকারী সংস্থা অত্যন্ত শক্তিশালী ঔষধ প্রস্তুত করছে খুব তাড়াতাড়ি রোগ নিরাময়ের জন্য যা প্রকৃতপক্ষে দেহের উপর বিরুপ প্রভাব ফেলতে পারে।

এর জন্য শরীরে বিবিধ ব্যাধির বাসা বাধে ফলে দেহ ও মনের মারাত্মক সমস্যার দেখা দেয়।এমন অনেক রোগ অসুস্থতা আছে যা আধুনিক ঔষধ সারাতে ব্যর্থ হয়।

হোমিওপ্যাথী,  ফিয়োনাপ্যাথী আমাদের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই সমস্ত ঔষধ মানবদেহের মনে ও শরীরে কোনো প্বার্শ প্রতিক্রিয়া তৈরী করেনা। এই সমস্ত ঔষধে অস্থায়ী ভিত্তিতে নিরাময়ের পরিবর্তে পুরোপুরি অসুস্থতা বা রোগ নিরাময় ঘটে থাকে।

আধুনিক চিকিৎসা ও আধুনিক ঔষধে মানুষের অতি শীঘ্র অস্থায়ী ভিত্তিতে রোগ নিরাময় ঘটে কিন্তু ঐ ঔষধে পরবর্তী কালে দেহে গুরুতর ভাবে প্বার্শ প্রতিক্রিয়া দেখা যেতে পারে।

এই ওষুধ অযৌক্তিক ভাবে বেশী পরিমাণ বা অতিরিক্ত মাত্রায়
গ্রহণ করলে বিভিন্ন সমস্যা, বমিভাব এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। আর এই সম্বন্ধে আমাদের সম্মক ধারনাও নেই।

উদাহরণস্বরূপ: ক্যান্সারের মতো রোগের আজকের আধুনিক ঔষধের প্রতিকার থাকলেও তার সমান পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *