ফিয়োনাপ্যাথি ও জীবন ধারা

ফিয়োনাপ্যাথি ও জীবন ধারা

আমরা আমাদের বিভিন্ন নিবন্ধ গুলিতে আহারভিত্তিক স্বাস্থ্যক্র খাবার ও স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের নিদর্শন গুলি নিয়ে আলোচনা করেছি। আমরা একে জীবনশৈলী বলি। জনগন আমাদের ফিয়োনাপ্যাথী নিয়ে খুবই আগ্রহী।

 

আমরা বলতে চাই
*ফিয়োনাপ্যাথী স্বাস্থ্যকর জীবন যাপনের জন্য সাধারণ খাদ্যাভাসগুলিকে চিহ্নিত করে।

*এটি আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকা নির্দেশ করে।কোন খাদ্যগুলি গ্রহণ যোগ্য কোন খাদ্যগুলি বর্জনীয় তা চিহ্নিত করে।

*ফিয়োনাপ্যাথীতে সহজপাচ্য সবুজ শাকসবজী ব্যবহার করতে বলা হয়েছে।এবং মাছ,মাংস, তেল, মশলা ইত্যাদি বর্জন করতে বলা হয়েছে। এতে জীবন পুনরুজ্জীবিত ও দীর্ঘায়ু হয়।

ল্যামিনা রিসার্চ সেন্টার প্রাঃ লিঃ এর এম ডি ডঃ সমীর কুমার ধাড়া ফিয়োনাপ্যাথী উপস্থাপন করেছেন, যারা অনিয়মিত এবং অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাসে ভুগছেন তাদের স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাসে এ পরিণত করতে। ডাঃ ধাড়া বিশ্বাস করেন যে ভগবান আমাদের সৃষ্টি করেছেন কেবলমাত্র খাবার গ্রহণের জন্য ওষুধ গ্রহণের জন্য নয় এবং তাঁর অভিজ্ঞতা থেকে তিনি বিশ্বাস করেন যে আয়ুর্বেদের পেট, কিডনি, লিভার, হার্ট ইত্যাদি সম্পর্কিত সমস্ত ধরণের অসুস্থতার প্রতিকার রয়েছে। তিনি বলেছেন আমাদের শরীর প্রাথমিকভাবে শুধুমাত্র খাদ্য গ্রহণ করতে পারে আর ঔষধ প্রয়োজনীয়তার সাপেক্ষে ব্যবহার করতে পারে।

বর্তমানে মানুষ স্বাস্থ্যকর খাদ্যভ্যাসের পরিবর্তে ঔষধের সাথে আরও বেশী অতঃপ্রত ভাবে সংযুক্ত হয়ে পরছে। যা সেই ব্যক্তির জীবন ধারাকে সম্পূর্ণ বদলে দেয়।সুস্থ জীবনধারা যা সুস্থ্য জীবন যাপনের অভ্যাস কে বোঝায়।

বর্তমান যুগে দেরি করে ঘুমানো, দেরী করে ঘুম থেকে ওঠা, বেশী পরিমানে চা ও কফি গ্রহণ, ফাস্ট ফুড খাওয়া, কোন রকম শরীরচর্চা না করা এই সমস্ত বদভ্যাস বর্জন করে সুস্থ্য জীবন যাপনের অভ্যাস গড়ে তোলা প্রয়োজন। একজন ব্যক্তির সুস্থ থাকার জন্য এমন জীবনধারা গ্রহণ করা উচিত।
ফিয়োনাপ্যাথি” আমাদের এমন জীবনধারা শেখায়
যা সুস্থ এবং ফিট থাকার জন্য অনুসরণ করা এবং গ্রহণ করা যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *